নতুন বছরে পারমাণবিক অস্ত্র বাড়ানোর ঘোষণা কিমের

  বিশেষ প্রতিনিধি    01-01-2023    504
নতুন বছরে পারমাণবিক অস্ত্র বাড়ানোর ঘোষণা কিমের

বৈঠকে কিম জং উন।

মার্কিন নেতৃত্বাধীন ক্রমবর্ধমান হুমকি মোকাবিলায় নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎপাদন এবং পারমাণবিক অস্ত্রাগার তৈরির আহ্বান জানিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জন উন। বছরের শেষদিন ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপর পরই এ কথা বলেন তিনি।

উ. কোরিয়ার ক্ষমতাসীন দল ওয়াকার্স পার্টির বৈঠকে নিজ দেশের সার্বভৌমত্ব ও নিরাপত্তা স্বার্থে সামরিক শক্তি বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরেন কিম।

গত সপ্তাহে উ.কোরিয়ার সীমান্তে দক্ষিণ কোরিয়ার ড্রোন প্রবেশ করে। একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ এবং সিউলের ড্রোন নিয়ে নতুন করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে। এর মধ্যেই সামরিক শক্তি বৃদ্ধির ঘোষণা দিলেন কিম।

উত্তরের শাসক অভিযোগ করে আরও বলেন, ওয়াশিংটন ও সিউল পিয়ংইয়ংকে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন এবং দমিয়ে রাখার চেষ্টা করছে। সেই সঙ্গে দ. কোরিয়ায় ধারাবাহিকভাবে মোতায়েন করা মার্কিন পরমাণু অস্ত্র ও সরঞ্জামকে ‘মানব ইতিহাসে নজিরবিহীন’ বলেও অভিহিত করেন কিম। এমন পরিস্থিতিতে নিজ দেশের পারমাণবিক শক্তিকে আরও শক্তিশালী করতে নতুন আইসিবিএম তৈরির প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি। আইসিবিএম ক্ষেপণাস্ত্রের ‘প্রধান লক্ষ্য হবে দ্রুত পাল্টা পারমাণবিক হামলা চালানো’।

শনিবার ২০২২ সালের শেষ দিনে কোরীয় উপদ্বীপের পূর্ব দিকে সাগরে পিয়ংইয়ং তিনটি স্বল্প পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে বলে জানিয়েছে সিউল। উত্তর কোরিয়ার একটি ড্রোন দক্ষিণের আকাশসীমায় ঢুকে পড়ার পাঁচদিন পর ক্ষেপণাস্ত্র তিনটি ছোড়া হয়। এ নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছে প্রতিবেশী দেশ দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপান। সূত্র: রয়টার্স

আন্তর্জাতিক-এর আরও খবর