টেকনাফে বিজিবির পৃথক অভিযানে ৩ লক্ষ ৩০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার

  বিশেষ প্রতিনিধি    15-07-2023    96
টেকনাফে বিজিবির পৃথক অভিযানে ৩ লক্ষ ৩০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার

টেকনাফে পৃথক অভিযান চালিয়ে ৩ লক্ষ ৩০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্নেল মোঃ মহিউদ্দীন আহমেদ (বিজিবিএমএস) গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে, শুক্রবার (১৪ জুলাই) রাতে টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়ন এর অধীনস্থ নাজিরপাড়া বিওপি’র দায়িত্বপূর্ণ বিআরএম-৫ হতে আনুমানিক ৫০০ গজ উত্তর দিকে আলুগোলা নামক এলাকা দিয়ে মাদকের একটি বড় চালান মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পাচার হতে পারে।

এমন সংবাদের ভিত্তিতে ব্যাটালিয়ন সদর এবং নাজিরপাড়া বিওপি থেকে দুটি চোরাচালান প্রতিরোধ টহলদল বর্ণিত এলাকায় গমন করে কয়েকটি উপদলে বিভক্ত হয়ে আলুগোলা (ভাংগা) মাছের প্রজেক্টের আইলের আঁড় নিয়ে কৌশলগত অবস্থান গ্রহণ করে।

কিছুক্ষণ পর টহলদল তিনজন ব্যক্তিকে তিনটি কালো পলিথিনের ব্যাগ হাতে নিয়ে বেড়ীবাঁধ অতিক্রম করে সীমান্তের শূন্য লাইন হতে আনুমানিক ১ কিলোমিটার বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বর্ণিত স্থানের দিকে আসতে দেখে। তাদের গতিবিধি সন্দেহজনক পরিলক্ষিত হওয়ায় টহলদল তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করলে উক্ত ব্যক্তিরা দূর থেকে বিজিবি টহলদলের উপস্থিতি টের পেয়ে তাদের হাতে থাকা তিনটি পলিথিনের ব্যাগ ফেলে দিয়ে দ্রুত দৌড়ে নাফনদীর পার্শ্বে কেওড়া বাগানের ভিতরে পালিয়ে যায়।

পরবর্তীতে টহলদল উল্লিখিত স্থানে পৌঁছে তল্লাশি অভিযান পরিচালনা করে চোরাকারবারিদের ফেলে যাওয়া তিনটি পলিথিনের ব্যাগ হতে ১ লক্ষ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট (মালিকবিহীন অবস্থায়) জব্দ করা হয়। উল্লেখ্য উক্ত অপারেশন চলাকালীন আরোও জানা যায় যে, বর্ণিত এলাকা দিয়ে আরোও ইয়াবা ট্যাবলেট এর চালান পাচার হতে পারে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে রাত হতেই টহলদল কয়েকটি উপদলে বিভক্ত হয়ে বর্ণিত এলাকার আলুগোলা (ভাংগা) মাছের প্রজেক্টের আইল, কেওড়া বাগান এবং বেড়ি বাঁধের আঁড় নিয়ে কৌশলগত অবস্থান গ্রহণ করে থাকে।

শনিবার (১৫ জুলাই) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে পূর্ব থেকেই অবস্থানরত টহলদল নাফনদী পার হয়ে তিনজন ব্যক্তিকে একটি প্লাস্টিকের বস্তা কাঁধে নিয়ে বেড়ীবাঁধ অতিক্রম করে বর্ণিত স্থানের দিকে (আলুগোলা মাছের প্রজেক্ট) আসতে দেখে।

তাদের চলাচলের গতিবিধি সন্দেহজনক পরিলক্ষিত হওয়ায় টহলদল তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করলে উক্ত ব্যক্তিরা দূর থেকে বিজিবি টহলদলের উপস্থিতি টের পেয়ে তাদের কাঁধে থাকা বস্তাটি ফেলে দিয়ে বর্ণিত সময় মাছের প্রজেক্টে অনেক শ্রমিকের কাজের সুযোগে দ্রুত দৌড় দিয়ে নাফনদীর পার্শ্বে অবস্থিত ঘন কেওড়া বাগানের ভিতরে পালিয়ে যায়।

টহলদল উল্লিখিত স্থানে পৌঁছে তল্লাশি অভিযান পরিচালনা করে চোরাকারবারিদের ফেলে যাওয়া বস্তার ভিতর থেকে ১ লক্ষ ৮০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট (মালিকবিহীন অবস্থায়) জব্দ করা হয়। উক্ত অভিযানে জব্দকৃত সর্বমোট ইয়াবা ট্যাবলেট এর পরিমাণ ৩ লক্ষ ৩০ হাজার পিস।

টহলদল উক্ত এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হলেও কোন চোরাকারবারি কিংবা তাদের সহযোগীকে আটক করা সম্ভব হয়নি। চোরাকারবারীদেরকে শনাক্ত করার জন্য অত্র ব্যাটালিয়নের গোয়েন্দা কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

তিনি আরো জানান, উদ্ধারকৃত মালিকবিহীন ৩ লক্ষ ৩০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো বর্তমানে ব্যাটালিয়ন সদরের স্টোরে জমা রাখা হয়েছে এবং প্রয়োজনীয় আইনি কার্যক্রম গ্রহণ পরবর্তীতে তা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।

সারাদেশ-এর আরও খবর